নামের বিড়ম্বনা ! পাক প্রধানমন্ত্রী ভেবে অভিনেতা ইমরান খান কে শুভেচ্ছা বার্তা

রায়গঞ্জ সংবাদ : পাকিস্তানের ভাবী প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ইমেলের উত্তর দিচ্ছেন বলিউড নায়ক। তেহরিক-ই-ইনসাফ সাধারণ নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর থেকে এমনটাই ঘটছে। জয়ের শুভেচ্ছা জানাতে বলিউড অভিনেতা ইমরানকেই ইমেল করছেন পাক নাগরিক। বিষয়টি যতটা দেখতে সোজা আসলে ততটাই জটিল। নামে এক, তাতেই বেধেছে গোল। প্রাক্তন ক্রিকেট তারকার কাছে বার্তা পৌঁছাতে চেয়ে বলিউড অভিনেতা ইমরান খানকে ই-মেল করে ফেলেছেন অনেকে। ইনবক্স উপচে পড়ছে শুভেচ্ছাবার্তায়। স্বভাবতই অস্বস্তিতে বলিউড তারকা। যে নাম যশ নিয়ে আসে, সেই নামই এখন অন্যের খ্যাতিতে ব্যবহৃত হচ্ছে, ভাবতেই পারছেন না তিনি।  অস্বস্তি এড়াতে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিষয়টি নিয়ে কৌতুকও করেছেন ‘জানে তু ইয়া জানে না’-র নায়ক।

[প্রেমের পাগলামো নিয়ে প্রকাশ্যে ‘লায়লা মজনু’র ট্রেলার]

শুভেচ্ছা ইমেল দেখে প্রথম প্রতিক্রিয়ায় যাননি ইমরান। কিন্তু অনুরাগী যখন তাঁকে প্রিয় প্রধানমন্ত্রী সম্বোধন করলেন, তখন আর চুপ থাকতে পারেননি। জবাবে বেশ কৌতুক করেই বলেন, ‘খুব বেশিদিন এই ডাক এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব নয়, অনুমান করি। খুব শিগগিরি এনিয়ে বেশকিছু নীতিমালা প্রণয়ন করবে। তারপর ধীরে ধীরে আপনাদের জানিয়ে দেব।’ নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে সেই ই-মেলের স্ক্রিনশট প্রকাশ করেই এই বক্তব্য লেখেন ইমরান।

[‘স্ত্রী’র সেটে সত্যিই ভূতের আতঙ্ক, কাহিনি ফাঁস করলেন পরিচালক]

আসলে সোশ্যাল সাইটে এই কৌতুক করে খ্যাতিমানের সঙ্গে নাম শেয়ারের বিড়ম্বনাকেই বোঝাতে চেয়েছেন বলিউড অভিনেতা। ২০১৫-তে কঙ্গনা রানাউতের বিপরীতে ‘কাট্টি বাট্টি’ ছবির পর আর সেভাবে বড়পর্দায় দেখা যায়নি ইমরানকে। আহামরি কোনও সাফল্য নেই। অভিনেতা হিসেবে তেমন কোনও জনপ্রিয়তা নেই তাঁর। তাই ইমরানের আগে পিছে খুব একটা ক্যামেরার দেখা মেলে না। ফ্যান ফলোয়ার্সের কোনও গ্রুপও নেই। যদিও শোনা যাচ্ছে খুব শিগগিরি ছবি পরিচালনায় হাত দিতে চলেছেন ইমরান খান। তবে তা নিয়ে নিশ্চিত কোনও খবরও নেই। পেজ-থ্রি হিরোদের তালিকাতেও তাঁকে খুব একটা দেখা যায় না। এমতাবস্থায় একের পর শুভেচ্ছা মেলে খটকা তো লাগবেই। তবে প্রিয় প্রধানমন্ত্রী সম্বোধনেই সেই খটকা দূর হয়েছে। কোথায় আসলে গলদ তা তিনি ধরতে পেরেছেন। অন্যদিকে, দেশের অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে টালমাটাল পাকিস্তান। কোন রাজনৈতিক নেতাকে সমর্থন করলে শান্তিতে থাকা যাবে, জানেন না আম নাগরিক। রাজনৈতিক দল তেহরিক-ই-ইনসাফ সাধারণ নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর আশায় বুক বেঁধেছেন পাক নাগরিকরা। তেহরিক-ই-ইনসাফ প্রধান ইমরান খান হচ্ছেন পাকিস্তানের আগামী প্রধানমন্ত্রী। তাই প্রধানমন্ত্রীর সুনজরে থাকতে তাঁকে ই-মেল করে শুভেচ্ছা জানানোর চেষ্টা করছেন অনুরাগীরা। যার ফলে বিড়ম্বনায় পড়েছেন অভিনেতা ইমরান খান।

No comments

Powered by Blogger.